‘২৫ শতাংশ আইফোন ভারতে উৎপাদন করতে চায় অ্যাপল’

অ্যাপল তাদের মোট আইফোনের অন্তত ২৫ শতাংশ ভারতে উৎপাদন করতে চায় বলে জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় বাণিজ্য ও শিল্পমন্ত্রী পিযূষ গয়াল। 


পিযূষ গয়াল ভারতের বাণিজ্য সম্ভাবনার কথা বলতে গিয়ে অ্যাপলকে দেশটির ‘আরেকটি সফলতার গল্প’ হিসেবে বর্ণনা করেন। ভারত বর্তমানে বিশ্বের পঞ্চম বৃহৎ অর্থনীতির দেশ।

সম্প্রতি এক কনফারেন্সে মন্ত্রী বলেন, ‘তারা (অ্যাপল) ইতোমধ্যেই তাদের মোট উৎপাদনের ৫-৭ শতাংশ ভারতে করে থাকে। আমি যদি ভুল না করে থাকি, তাহলে তাদের লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে এটিকে ২৫ শতাংশে উন্নীত করা।’

ভারতীয় মন্ত্রীর এ বক্তব্যের বিষয়ে অ্যাপল আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো মন্তব্য করেনি।

তবে যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম বড় আর্থিক প্রতিষ্ঠান ‘জেপিমরগ্যান’ এক বিশ্লেষণে এমন তথ্যই জানিয়েছে। বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, ২০২৫ সাল নাগাদ অ্যাপল তাদের মোট আইফোনের অন্তত ২৫ শতাংশ ভারতে উৎপাদন করতে পারে।

গত বছর অ্যাপল ভারতে তাদের ফ্ল্যাগশিপ আইনফোন ১৪-এর অ্যাসেম্বলিং করা শুরু করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়াভিত্তিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানটি এই প্রথম তাদের সবচেয়ে আধুনিক মডেলের ফোন ভারতে অ্যাসেম্বল করল। ২০১৭ সাল থেকেই অ্যাপল ভারতে আইফোন উৎপাদন করে আসছে, যদিও সেগুলো মূলত আইফোনের পুরনো মডেল।

তাইওয়ানের প্রতিষ্ঠান ফক্সকন, যারা আইফোনের প্রধান সংযোজনকারী, তারা চেন্নাইয়ের পাশে বিশাল ফ্যাক্টরিতে আইফোন সংযোজনের কাজ করছে।

অ্যাপল অনেক দিন ধরেই চীনের বাইরে আইফোন উৎপাদনের সম্ভাব্যতা যাচাই করে দেখছে। এখনও প্রতিষ্ঠানটির বেশিরভাগ আইফোন উৎপাদিত হয় চীনে। কিন্তু চীনের ওপর থেকে এখন নির্ভরতা কমাতে চাইছে অ্যাপল। গত বছর চীনের ঝেংঝুতে অ্যাপলের সবচেয়ে বড় সহযোগী ফক্সকনের ফ্যাক্টরিতে করোনার প্রকোপ এবং কর্মী বিদ্রোহ ছড়িয়ে পড়লে উৎপাদন ব্যাহত হয় এবং এই ঘটনায় চীনের ওপর নির্ভরশীলতা নিয়ে অ্যাপলের উদ্বেগ আরও বেড়েছে।

ভারতে অ্যাপলের মার্কেট শেয়ার মাত্র ৫ শতাংশ। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা টিম কুক দীর্ঘদিন ধরেই ভারতের বাজারে নিজেদের আরও সাফল্যের সম্ভাবনা দেখে আসছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *